মেনু নির্বাচন করুন
খবর

বগূড়ার শেরপুরে ইলিশ মাছ রক্ষায় মোবাইল কোর্টের অভিযান অব্যাহত।

বগুড়ার শেরপুর উপজেলা সিনিয়র অফিসারের উদ্যোগে জাতীয় সম্পদ ইলিশ মাছ রক্ষায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট জনাব মোঃ লিয়াকত আলী সেখ শেরপুরের রানীর  হাটসহ বিভিন্ন জায়গায় মাছের বাজারে মোবাইল কোর্টের অভিযান চালান। তবে বাজারে কোন ইলিশ মাছ পাওয়া যায়নি। এছাড়াও বাজারে কারেন্ট জাল ক্রয়-বিক্রয় হচ্ছে কিনা তাও মোবাইল কোর্ট পর্যবেক্ষণ করে। তবে কারেন্ট জালও পাওয়া যায় নি। রাক্ষুসে মাগুর, পিরানহা মাছ বাজারে বিক্রয় হচ্ছে কিনা সে বিষয়েও অনুসন্দধান করা হয়, তবে এগুলো বাজারে দেখা যায়নি।  এসময় সিনিয়র উপজেলা মৎস্য অফিসার জনাম মাসুদ এবং শেরপুর থানার এস আইসহ সঙ্গীয় পুলিশ সদস্যগণ মোবাইল কোর্টকে সহায়তা করেন।

এসময় ্মাছ ব্যবসায়ীদের ধন্যবাদ জানিয়ে ইউএনও বলেন, দেশের জাতীয় সম্পদ ইলিশ মাছ রক্ষায় এগিয়ে আসুন, জাতীয় উন্নয়নে অবদান রাখুন।সরকার দেশ-জাতির বৃহত্তর স্বার্থে ০৯/১০/২০১৯ তারিখ থেকে ৩০/১০/২০১৯ তারিখ পর্যন্ত প্রধান প্রজনন মৌসুমে ইলিশ মাছ ধরা নিষিদ্ধ করেছেন। এ সময় সমগ্র দেশে ইলিশ মাছ আহরণ, পরিবহন, মজুদ, বাজারজাতকরণ, ক্রয়-বিক্রয় এবং বিনিময় নিষিদ্ধ এবং দণ্ডনীয় অপরাধ। এই আইন লঙ্ঘনকারীকে ২ বছর পর্যন্ত জেল এবং ৫০০০/- টাকা পর্যন্ত জরিমানা করার বিধান রয়েছে। সরকারের বিধি-নিষেধ মেনে চলার জন্য সকলকে বিশেষ অনুরোধ জানাচ্ছি। এ সময় মাছ ব্যবসায়ীদের মাঝে সচেতনাতমূলক লিফলেট প্রচার করা হয়।

ছবি


ফাইল


প্রকাশনের তারিখ

২০১৯-১০-১৭

আর্কাইভ তারিখ

২০২১-০১-২৮


Share with :

Facebook Twitter